৫২ বছরে বিমান বাংলাদেশ, দুর্নামই বেশি 

বিমান

প্রতিষ্ঠার ৫২ বছরেও যাত্রীদের পুরো আস্থা অর্জন করতে পারেনি জাতীয় পতাকাবাহী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস। ফ্লাইট ছাড়ায় দেরি, লাগেজ ভাঙ্গাসহ নানা অভিযোগ বিমানের বিরুদ্ধে। তবে সেবার মান বাড়াতে সম্প্রতি বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। যাত্রীদের জন্য চালু হচ্ছে ২৪ ঘণ্টার কলসেন্টার।

১৯৭২ সালে ৪ জানুয়ারি বিমান বাহিনীর দেওয়া একটি ডিসি-৩ বিমান দিয়ে যাত্রা শুরু করে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস। যাত্রী সেবার মান বাড়াতে ২০০৭ সালে পাবলিক লিমিটেড কোম্পানিতে রুপান্তর হয় বিমান। তবে এর শতভাগ শেয়ারের মালিকানাই সরকারের।

গত ৫২ বছরে বিমানের বহরে যুক্ত হয়েছে ড্যাশ-এইট, বোয়িং- সেভেন থ্রি সেভেন ও সেভেন-এইট-সেভেন ড্রিমলাইনারসহ ২১টি আধুনিক উড়োজাহাজ। বর্তমানে কানাডা, যুক্তরাজ্য, চীন, জাপানসহ বিশ্বের ২২টি গন্তব্যে ফ্লাইট পরিচালনা করছে বিমান। তবে নানা কারণে এখনও যাত্রীদের আস্থার সংকট রয়েছে।

বিশ্বের যেখানেই বাংলাদেশিদের বসবাস, সেখানেই ফ্লাইট পরিচালনার পরিকল্পনা আছে বলে জানিয়েছেন বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শফিউল আজিম। শফিউল আজিম জানান, যাত্রীসেবার মান বাড়াতে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির সমন্বয় করা হয়েছে। খাবারের মান বাড়ানোর সাথে নিয়োগ হয়েছে নতুন কেবিন ক্রু। আর ২৪ ঘণ্টা যাত্রীদের সেবা দিতে চালু হচ্ছে কলসেন্টার। ২০২২-২৩ অর্থবছরে ৩১ লাখ যাত্রী পরিবহন করেছে বিমান, যা আগের বছরের চেয়ে ৯ লাখ বেশি। এছাড়া আগামী মার্চে ইতালির রোমে চালু হচ্ছে ফ্লাইট। আর নিউইয়র্কসহ বিভিন্ন গন্তব্যে ফ্লাইট পরিচালনায় নতুন উড়োজাহাজ কেনারও সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

আরও দেখুন

এ সংক্রান্ত আরও পড়ুন